পুরুষের স্বাস্থ্য নারী স্বাস্থ্য ও দেহতত্ত্ব রোমান্টিক সম্পর্ক ডার্মাটোলজি গর্ভনিরোধ এবং পরিবার পরিকল্পনা মাসিক স্ত্রীরোগবিদ্যা-সংক্রান্ত সৌন্দর্য চর্চা শিশুর যত্ন নারী স্বাস্থ্য- গর্ভাবস্থা প্রাথমিক যৌন জ্ঞান ফিটনেস ইউরোলজি চর্ম নাক,কান, গলা সংক্রান্ত

Maya is ready to help on your physical or mental

health issues in this lockdown situation.

Maya connects you to doctors, mental health counsellors and wellbeing experts anonymously, 24/7.

বিয়ে করেছি অনেকবছর আগে। এখন আমি গর্ভবতী। হাজবেন্ড কে সব খুলে বলেছি আমার ভালো লাগা না লাগার কথা। তাকে বলেছিলাম, "তোমার থেকে দূরে থাকলে কষ্ট হয় খুব" তাকে এটাও বলেছিলাম, আমাকে ঘুরতে নিয়ে যাবে কিন্তু। পহেলা ফাল্গুনে সে সারাদিন বাসায় ছিল, বলার পরেও কোনো সাড়া দেয় নি। ভালবাসা দিবসে বাইরে নিয়ে যাব বলে সেউ সকালে বের হয়ে সব্ধ্যায় বাসায় এসেছে। আমি ঘরে একা খুব কষ্ট পেয়েছিলাম। এমন হত, তাকে আমি বলি নি তাই হয়তবা অবহেলা করেছে। এসব ছোটখাটো বিষয় আমি কখনওই মাথায় না নিয়ে তাকে যত্ন করেছি। :) আজ আমার কষ্টের সময়। সে মাসখানেক তার সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। তার কি আমার কথা আদৌ ও মনে পড়ে বসে বসে ভাবি। আমি নিশ্চুপ। জীবনে নতুন করে তাকে আর কি বলব! তার কাছে কি মনে হয় না মাসখানেকের উপর বিচ্ছিন্নতা, এই সম্পর্কটা স্বাভাবিক না? :) আমি কি ধরে নিব? এটাকেই কি সেপারেট থাকা বলে? যেখানে মা তার বাচ্চা কে নিয়ে সুখ, উৎসব, দুঃখ করবে একা একা। বাবা থাকবে না?

Dhaka District

আমার বয়স ২২ বছর। আমি আমার কাজিনকে ছোটবেলা থেকে খুব লাইক করতাম কিন্তু বিভিন্ন সমস্যার কারণে তাকে প্রপোজ করিনি। এইসময়ে এসে আমি সিদ্ধান্ত নিলাম তাকে ভুলে যাবো। এক নাম্বার কারণ সে আমার প্রপোজ গ্রহন করবে না, দ্বিতীয়ত তার ক্যারেক্টার আমার পছন্দ হচ্ছে না। etc etc... আমি অন্যকোন মেয়ের সাথে কখনো কোন রিলেশনে যাইনি। কিছুদিন আগে অনলাইনে একটি মেয়ের সাথে আমার চ্যাট হয়। মেয়েটিকে আমার ভালো লাগে। আমি তাকে ফ্রেন্ডশিপের অফার করি সে তা গ্রহন করে কিন্তু সে আমাকে কন্ডিশন দেয় যে, "কখনো প্রেমে পড়বেন না।" কারণ হিসেবে জানতে পারি, তার বাবা-মায়ের লাভ ম্যারিজ ছিলো কিন্তু বিয়ের একবছরের মধ্যেই তাদের ডিভোর্স হয়ে যায় এবং তারও আগে একটা ছেলের সাথে ৫ বছরের রিলেশন ছিলো কিন্তু ছেলেটাকে সন্দেহ বিধায় সে নিজে থেকেই ব্রেকাপ করেছিলো এবং ব্রেকাপের প্রায় ১ মাস পরেই ছেলেটা অন্য আরেকটি মেয়ের সাথে রিলেশনে যায়। তখন সে নাকি সত্যি সত্যিই জানতে পারলো ছেলেটি তাকে আসলেই ভালোবাসতো না। এখন সে কোন ছেলে এবং কোন রিলেশনেই বিশ্বাস করে না। আমি বললাম, সবাই তো আর একরকম না, সে বলে, না সবাই একরকমই। আমি তাকে বলে দিয়েছি, তোমাকে ভালো লেগেছিলো বলেই আমি ফ্রেন্ডশিপের অফার দিয়েছি। এবং বলেছি, কিন্তু যদি কখনো প্রেমে পড়ে যাই? সে বলেছে, "না পড়া যাবে না। আমি ফ্রেন্ডশিপে বিশ্বাস করি রিলেশনশিপে না।" এখন তার সাথে আমার মোটামুটি ভালো একটা বন্ডিং হয়েছে, আগে সে আমাকে আপনি বলে সম্ভোধন করতো আর আমি তাকে তুমি করে বলতাম। একদিন তাকে অফার করলাম, বললাম ফ্রেন্ডশিপের মাধ্যে আপনি আর তুমি করে বলা উইয়ার্ড লাগে আমরা কী একে অপরকে তুই করে বলতে পারি না? এরপর থেকে আমরা একে অপরকে তুই করেই সম্ভোধন করি। আমি তার সাথে এখনই রিলেশনে যেতে চাই না, আমি তার সম্পর্কে আরো জানতে চাই এবং সেও আমাকে আরো জানুক। আমি তাকে ফ্রেন্ড হিসেবে হলেও সারাজীবন পাশে চাই। যদি সে প্রেমের সম্পর্কে বিশ্বাস না করে বিয়ের সম্পর্কেও বিশ্বাস করে তাহলে আমি তাকে ফ্রেন্ডশিপ থেকে ডিরেক্ট বিয়ে করে নিতে চাই। এখন আমার কী করা উচিৎ? আমার সিদ্ধান্ত সঠিক নাকি ভুল?  এই বিষয়ে আমাকে বিস্তারিত পরামর্শ দিবেন প্লিজ।

মনের প্রশ্ন খুঁজে না পেলে আপনিও

Ask Now

Maya | Digital Wellbeing Assistant | মায়া অনলাইন স্বাস্থ্য ও কল্যাণ সংস্থা

প্রশ্ন করুন আপনিও