প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। সারাজীবনে ৫ বার টিটি টিকা নিতে হয়। এ টিকা যে-কোন সময়ে নেয়া যায়। তবে সরকারী কর্মসূচি অনুযায়ী ১৫ বছর বয়স থেকে টিকা দেয়া শুরু করতে হয় এবং নীচের সময়সূচি অনুযায়ী সারাজীবনে ৫ বার টিটি টিকা দিতে হয়। পুরা ডোজ শেষ করতে মোট ২ বছর ৭ মাস সময় লাগে। মাত্রা কখন টিটি দিতে হবে: টিটি ১ম ডোজ: ১৫ বছর পূর্ণ হবার পর অথবা গর্ভবতী হলে ৪র্থ মাস থেকে। টিটি ২য় ডোজ: টিটি ১ম ডোজ দেয়ার ৪ সপ্তাহ পর। টিটি ৩য় ডোজ: টিটি ২য় ডোজ দেয়ার ৬ মাস পর অথবা পরবর্তী গর্ভবতী অবস্থায়। টিটি ৪র্থ ডোজ: টিটি ৩য় ডোজ দেয়ার ১ বছর পর অথবা পরবর্তী গর্ভবতী অবস্থায়। টিটি ৫ম ডোজ: টিটি ৪র্থ ডোজ দেয়ার ১ বছর পর অথবা পরবর্তী গর্ভবতী অবস্থায়। এই পাঁচটি ডোজ সম্পূর্ণ থাকলে এবং ৫ বছরের মধ্যে গর্ভধারণ করলে একটি বুস্টার টিটি ডোজ নিয়ে নিলে চলবে। টি টি ইনজেকশন এর ৫ ডোজ সম্পন্ন করার পর পাঁচ বছর পার হয়ে গেলে অথবা পূর্বের ডোজ অসম্পূর্ণ / কোন টি টি ইনজেকশন না নিয়ে থাকলে প্রেগনেন্সির সময় দুটি টিকা ২৪ সপ্তাহ বা পঞ্চম মাসে এবং প্রথম ডোজ দেবার এক মাস পর অর্থাৎ সপ্তম মাসে দ্বিতীয় ডোজটি নিয়ে নিলে যথেষ্ট। টিটেনাসের কোন টিকা আগে দিয়ে থাকলে এবং তার কোনো কার্ড থাকলে আপনি গাইনি ডাক্তার কে দেখাবেন এবং তাকে টিটি টিকা যেভাবে নিয়েছেন সম্পূর্ণ বিস্তারিতভাবে জানাবেন টিটি টিকা বেশি নিয়ে ফেললে কোন সমস্যা নেই এটি আপনাকে এবং আপনার বাচ্চাকে ধনুষ্টংকার রোগ হতে রক্ষা করে তাই অনেক ডাক্তার মা ও বাচ্চা সুরক্ষার জন্য টিটি টিকা দিয়ে থাকেন কারণ ডেলিভারি করার সময় যেসব যন্ত্রপাতি ব্যবহৃত হবে তার থেকে টিটেনাসের জীবাণু রক্তে প্রবেশ করার সম্ভাবনা থাকে তাই টিকা দেওয়া থাকলে জীবাণু প্রবেশ করলো রোগ হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।তবে টিটি টিকা দেওয়ার পর শারীরিক উপসর্গ যেমন পেট ব্যথা, জ্বর আসা ইত্যাদি হলে দ্রুত গাইনি ডাক্তার কে দেখিয়ে নেবেন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও